ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

উসমান-পেইনের বীরত্বে অস্ট্রেলিয়ার ড্র

https://www.jugantor.com/sports/99855/উসমান-পেইনের-বীরত্বে-অস্ট্রেলিয়ার-ড্র
BY  স্পোর্টস ডেস্ক ১১ অক্টোবর ২০১৮, ২২:৪৭ | অনলাইন সংস্করণ
দাপুটে লড়াইয়ে দুবাই টেস্টে ড্র করে মাঠ ছাড়ছেন অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক-ছবি গেটি ইমেজেস আগের দিনই অস্ট্রেলিয়ার পরাজয় নিশ্চিত ছিল। বাকি ছিল আনুষ্ঠানিকতা। কিন্তু পরাজয় নিশ্চিত জেনেও অসাধারণ লড়াই করেছেন অস্ট্রেলিয়ান ওপেনার উসমান খাজা। দুবাই টেস্টের চতুর্থ ইনিংসে তার সেঞ্চুরি এবং অধিনায়ক টিম পেইনের দুর্দান্ত লড়াইয়ে টেস্ট ইতিহাসে স্মরণীয় ড্র করেছে অস্ট্রেলিয়া।

শেষ ইনিংসে অস্ট্রেলিয়ার টার্গেট ছিল ৪৬২ রান। প্রথম ইনিংসে ২০২ রানে অলাউট হয়ে যাওয়া অস্ট্রেলিয়ার জন্য চতুর্থ ইনিংসে উইকেটে সময় কাটানোই ছিল মূল চ্যালেঞ্জ। সেই চ্যালেঞ্জ নিয়েছেন উসমান খাজারা।

আগের দিনে ৩ উইকেট হারিয়ে ১৬৩ রান সংগ্রহ করা অস্ট্রেলিয়া, বৃহস্পতিবার শেষ দিনে ফের ব্যাটিংয়ে নামে। দিনের শুরু থেকেই দেখেশুনে খেলতে থাকেন আগের দিনে ৫০ রান করা খাজা। চতুর্থ উইকেটে ট্রাভিস হেডকে সঙ্গে নিয়ে ১৩২ রানের জুটি গড়েন। ১৭৫ বল খেলে পাঁচটি চারের সাহায্যে ৭২ রান করেন ফেরেন ট্রাভিস। এরপর ৩৩ রান যোগ করেই ফেরেন মার্নাস লাবুশেন। সাত নম্বর পজিশনে ব্যাটিংয়ে নামা অধিনায়ক টিম পেইনকে সঙ্গে লড়াই চালিয়ে যান খাজা।

৫২৪ মিনিট ব্যাট করে ৩০২ বল খেলে ১১টি বাউন্ডারির সাহায্যে ১৪১ রান করেন উসমান খাজা। সংযুক্ত আরব আমিরাতে এর আগে টেস্টের চতুর্থ ইনিংসের এত লম্বা সময় কেউ ব্যাট করতে পারেননি। যেটা করে দেখালেন উসমান।

তার কাছ থেকে উৎসাহ পেয়ে অসাধারণ ব্যাটিং করেছেন অধিনায়ক টিম পেইন। মূলত উসমান খাজা এবং পেইনের বীরত্বে দুবাই টেস্টে ড্র করে অস্ট্রেলিয়া।

ইয়াসির শাহর ঘূর্ণি বলে এলবিডব্লিউ হয়ে ফেরেন দুর্দান্ত খেলতে থাকা উসমান খাজা। তার বিদায়ের মধ্য দিয়ে ফের ব্যাটিং ধস নামে। খাজার বিদায়ের পর দুই রানের ব্যবধানে ২ উইকেট হারায় অস্ট্রেলিয়া।

তবে নাথান লায়নকে সঙ্গে নিয়ে ফের প্রতিরোধ গড়ে তোলেন পেইন। রান তোলার চেয়ে উইকেট ধরে রাখাই তাদের প্রধান লক্ষ্য। অধিনায়ক পেইনও লায়নকে দারুণ সঙ্গ দিলেন। টেস্টে ১০ নম্বরে ব্যাটিংয়ে নেমে খেলেন ৩৪ বল। টিম পেইন-নাথান লায়নের প্রতিরোধে জয়ের স্বপ্ন ভেস্তে যায় পাকিস্তান।

শেষ বলে জয়ের জন্য অস্ট্রেলিয়ার প্রয়োজন ১০০ রান। পাকিস্তানের প্রয়োজন এক বলে ২ উইকেট। যেহেতু ক্রিকেটীয় কোনো নিয়মে ১ বলে ২ উইকেট শিকার করা সম্ভাবনা সেহেতু এক বল আগেই ম্যাচ ড্র ঘোষণা দেন আম্পায়ার রিচার্ড ইলিংওয়ার্থ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

পাকিস্তান প্রথম ইনিংস: ৪৮২/১০ (হাফিজ ১২৬, হারিস ১১০, আসাদ ৮০, ইমাম ৭৬; সিডল ৩/৫৮) এবং দ্বিতীয় ইনিংস: ১৮১/৬ (ইমাম ৪৮, আসাদ ৪১, হারিস ৩৯, বাবর ২৮*)।অস্ট্রেলিয়া প্রথম ইনিংস: ২০২/১০ (খাজা ৮৫, ফিঞ্চ ৬২;বিলাল ৬/৩৬, আব্বাস ৪/২৯) এবং দ্বিতীয় ইনিংস: ৩৬২/৮ (খাজা ১৪১, ট্রাভিস ৭২, ফিঞ্চ ৪৯, পেইন ৬১*; ইয়াসির ৪/১১৪, আব্বাস ৩/৫৬)।

ফল: ড্র

ম্যাচসেরা: উসমান খাজা (অস্ট্রেলিয়া)।