ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ৮ ফাল্গুন ১৪২৬
BY  যুগান্তর ডেস্ক ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ
বিশ্বজয় করে দেশে ফেরা যুব ক্রিকেটাররা জন্মভিটা বা মা-বাবার কাছে যাওয়ার পথে মানুষের ভালোবাসায় সিক্ত হয়েছেন। অধীর অপেক্ষায় থাকা নিজ জেলা-উপজেলা ও গ্রামের মানুষ তাদের পরম আদরে বরণ করে নিয়েছে ফুলেল শুভেচ্ছা ও সংবর্ধনার মধ্য দিয়ে।

বৃহস্পতিবার যুব ক্রিকেট দলের অধিনায়ক আকবর আলী, তামিম, তৌহিদ, শামীম, জয়, সাকিব, অভিষেক দাসসহ বেশ কয়েকজন ক্রিকেটার নিজ বাড়িতে যান। স্থানীয় প্রশাসন, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী ও ক্রীড়াপ্রেমীরা নানাভাবে তাদের প্রতি ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ ঘটান। ব্যুরো ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

রংপুর ব্যুরো ও সৈয়দপুর (নীলফামারী) : কারও হাতে ফুলের তোড়া, চোখে-মুখে আনন্দের বার্তা, কেউ রয়েল বেঙ্গল টাইগার সাজে- সবমিলে ব্যানার-ফেস্টুন-প্লাকার্ডে ঝলমলে পুরো রংপুর। এর সবটাই বিশ্বকাপজয়ী যুব ক্রিকেট দলের অধিনায়ক আকবর আলীকে ঘিরে। বৃহস্পতিবার রংপুরবাসী তাদের গৌরবের ভূমিপুত্র আকবর আলীকে বীরোচিত সংবর্ধনা দিতে জমকালো আয়োজন করে। হাজার হাজার ভক্তের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে সংবর্ধনা অনুষ্ঠান জনসমুদ্রে রূপ নেয়।

দুপুর সাড়ে ১২টায় নভোএয়ারের একটি ফ্লাইটে আকবর আলী ঢাকা থেকে সৈয়দপুর বিমানবন্দরে পৌঁছলে রংপুর সিটি মেয়র, জেলা প্রশাসন, জেলা পুলিশ ও ক্রীড়া সংস্থা, জাতীয় পার্টি, আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন সংগঠন ও প্রতিষ্ঠানের সুধীজন ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। এরপর আকবর আলীকে রংপুর মহানগর জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক এসএম ইয়াসির গাড়িতে তুলে নেন। সিটি মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফাও একই গাড়িতে ওঠেন।

সেখান থেকে আকবর আলীকে কার, মাইক্রো, মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা সহকারে রংপুরে নেয়া হয়। রংপুর পাবলিক লাইব্রেরি মাঠে রংপুর জেলা প্রশাসন ও ক্রীড়া সংস্থার পক্ষ থেকে তাকে সংবর্ধনা দেয়া হয়।

অনুষ্ঠানে সিটি মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সাফিয়া খানম, রংপুর জেলা প্রশাসক আসিব আহসান, মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার আবু সুফিয়ান, রংপুর জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু মারুফ হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফজলে এলাহী, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মমতাজ উদ্দিন আহমেদ, জেলা ও বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আনোয়ারুল ইসলাম, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি সাফিয়ার রহমান সাফি, সাধারণ সম্পাদক তুষার কান্তি প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে আকবর আলী বলেন, ‘বিশ্বকাপ জয়ের অর্জন ধরে আরও অনেক দূরে এগিয়ে যেতে চাই। আপনারা বাংলাদেশ টিমকে যেভাবে সাপোর্ট করে আসছেন, এই সাপোর্ট আগামী দিনে ধরে রাখবেন। আমাদের জন্য অনেক দোয়া করবেন। আমাদের এই অর্জন যেন শেষ না হয়ে যায়। আমরা আরও সাফল্য চাই।’ পরে আকবরকে মা-বাবার কাছে পৌঁছে দেয়া হয়। নিজ পাড়া ও বাড়িতে ঢোকার পথে তাকে ফুল দিয়ে বরণ করা হয়।

বগুড়া : বিশ্বকাপজয়ী অনূর্ধ্ব-১৯ দলের খেলোয়াড় তানজিদ হাসান তামিম ও তৌহিদ হৃদয় দুপুরে বগুড়া শহরে পৌঁছলে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়। শহরের বনানীতে জেলা ক্রীড়া সংস্থার পক্ষ থেকে জাতীয় পতাকা উড়িয়ে ও হর্ষধ্বনির মধ্য দিয়ে তাদের ফুল দিয়ে বরণ করা হয়।

পরে তাদের মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা সহকারে শহরের জিরো পয়েন্ট সাতমাথায় নেয়া হয়। ক্রিকেটপ্রেমীরা বগুড়ার দুই কৃতী খেলোয়াড়কে পেয়ে উল্লাসে মেতে ওঠেন। অনেকে তাদের সঙ্গে সেলফি তুলতে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। জেলা ক্রীড়া সংস্থার পক্ষ থেকে তামিম ও হৃদয়কে মিষ্টিমুখ করানো হয়। এ সময় বগুড়া শহীদ চান্দু স্টেডিয়ামের ভেন্যু ম্যানেজার জামিলুর রহমান জামিল, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহসভাপতি আলহাজ্ব শেখ, সদস্য পৌর কাউন্সিলর আরিফুর রহমান আরিফ, শহিদুল ইসলাম স্বপন, জাকিয়া সুলতানা আলেয়া প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

শহীদ চান্দু স্টেডিয়ামের ভেন্যু ম্যানেজার জামিলুর রহমান জামিল জানান, শিগগিরই জেলা ক্রীড়া সংস্থার উদ্যোগে কৃতী ক্রিকেটার তামিম ও হৃদয়কে গণসংবর্ধনা দেয়া হবে। বগুড়া জিলা স্কুলের সাবেক ছাত্র তামিমের বাড়ি জেলার সোনাতলা উপজেলার দিগদাইড় ইউনিয়নের ফাজিলপুর গ্রামে। আর বগুড়া পুলিশ লাইন্স স্কুলের সাবেক ছাত্র হৃদয়ের বাড়ি গাবতলী উপজেলার দক্ষিণপাড়া ইউনিয়নের নাংলু গ্রামে।

চাঁদপুর ও ফরিদগঞ্জ : বিশ্বচ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ দলের অপর দুই সদস্য চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার কৃতীসন্তান শামীম হোসেন পাটওয়ারী ও মাহমুদুল হাসান জয়কে তাৎক্ষণিক সংবর্ধনা দিয়েছে চাঁদপুর জেলা প্রশাসন। দুপুরে চাঁদপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে সংবর্ধনার আয়োজন করা হয়।

দুই খেলোয়াড়কে ফুল দিয়ে বরণ করেন চাঁদপুরের ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মাহমুদ জামান। এ ছাড়াও চাঁদপুর ক্রিকেট উপকমিটি, চাঁদপুর জেলা আইনজীবী সমিতি, চাঁদপুর টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরাম, চাঁদপুর ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিশেন দুই খেলোয়াড়কে ফুলেল শুভেচ্ছা জানায়। উপস্থিত ক্রীড়ামোদীদের উদ্দেশে শামীম ও জয় বলেন, বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জনে তারা খুবই আনন্দিত। প্রশাসন ও ক্রীড়া সংস্থার তাৎক্ষণিক সংবর্ধনায় তার খুবই উৎসাহিত। ভবিষ্যতে আরো ভালো করার জন্য সবার দোয়া চাই।

এর আগে শামীম ও জয় ঢাকা থেকে লঞ্চযোগে চাঁদপুরে এলে সর্বস্তরের মানুষ লঞ্চঘাটে তাদের ফুল দিয়ে বরণ করেন। পরে মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা সহকারে দু’জনকে চাঁদপুর থেকে ফরিদগঞ্জে নেয়া হয়।

সেখানে উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে উপজেলা ক্রীড়া সংস্থা তাদের সংবর্ধনা দেয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি শিউলী হরির সভাপতিত্বে ও ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক ও প্রেস ক্লাবের সভাপতি নুরুন্নবী নোমানের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছলেন চাঁদপুর জেলা ক্রিকেট কমিটির সহসভাপতি ও ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট জাহিদুল ইসলাম রোমান। উপস্থিত ছিলেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) শারমিন আক্তার, উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান জিএস তছলিম, মাজুদা বেগম প্রমুখ।

নড়াইল : বিজয়ী দলের অন্যতম খেলোয়াড় নড়াইলের কৃতীসন্তান অভিষেক দাস অরণ্য নিজ জন্মভূমি নড়াইলে পৌঁছেই ছুটে যান মাশরাফি মুর্তজার বাড়িতে। তখন মাশরাফির মা হামিদা মুর্তজা বলাকা অভিষেককে দৌড়ে এসে বুকে জড়িয়ে নেন। পরে নিজ হাতে তাকে মিষ্টি খাইয়ে দেন।

দুপুরে যশোর বিমানবন্দরে পৌঁছান অভিষেক। সেখান থেকে নাগরিক সমাজের ব্যানারে মোটরসাইকেল, প্রাইভেটকার শোভাযাত্রা সহকারে তাকে নড়াইলে আনা হয়। সেখানে হাজার হাজার মানুষ তাকে ফুল দিয়ে বরণ করেন। ভারতকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো যুব বিশ্বকাপ ছিনিয়ে আনে লাল-সবুজের দল। ওই দিন বাংলাদেশের হয়ে ভারতের তিনটি উইকেট তুলে নেন নড়াইলের কৃতীসন্তান অভিষেক দাস অরণ্য। ভারত শিবিরে প্রথম আঘাত হানে মাশরাফির এই যোগ্য উত্তরসূরি।

বালাগঞ্জ (সিলেট) ও ওসমানীনগর : বিশ্বকাপজয়ী তানজিম হাসান সাকিবকে বরণ করে নিয়েছে বালাগঞ্জের মানুষ। বিকাল ৪টায় সমর্থকরা সিলেট-ঢাকা মহাসড়কের তাজপুর কদমতলায় সাকিবকে ফুলের তোড়া দিয়ে বরণ করেন। ৫টার দিকে বিশাল গাড়িবহর ও মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা করে সাকিবকে নেয়া হয় বালাগঞ্জ উপজেলা সদরে। এ সময় রাস্তার দু’পাশে উৎসুক জনতা তাকে অভিবাদন জানান।

সাকিবের গাড়িবহর বালাগঞ্জ বাজারে পৌঁছলে সেখানে উপজেলাবাসীর পক্ষ থেকে তাকে সংবর্ধনা দেয়া হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগ ও উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সেক্রেটারি আনহার মিয়া চেয়ারম্যান, বালাগঞ্জ সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাকিবের চাচাতো ভাই আবদুল মুনিম, ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল মতিনসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ।

এরপর সন্ধ্যায় নিজ বাড়ির আঙিনায় সাকিবকে এলাকার সর্বস্তরের মানুষ সংবর্ধনা দেয়। এর আগে সাকিবকে সিলেট শহর থেকে গ্রামের বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার পথে ওসমানীনগর উপজেলাবাসীর পক্ষ থেকে তাজপুর কদমতলা এলাকায় তাকে সংবর্ধনা দেয়া হয়। এর আগে দুপুর দেড়টায় বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে সাকিব সিলেট ওসমানী বিমানবন্দরে পৌঁছলে সেখানে আনন্দঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়। বিমানবন্দরে তাকে বরণ করতে উপস্থিত হন তার বাবা গৌছ আলী, মা সেলিনা পারভিন ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যসহ বিপুলসংখ্যক মানুষ। তারা সাকিবকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন।

পঞ্চগড় : বিশ্বকাপজয়ী দলের অন্যতম পেসার শরিফুল ইসলাম ঢাকা থেকে বিমানে সৈয়দপুর পৌঁছলে তাকে স্থানীয় প্রশাসন ও জনগণের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেয়া হয়। সেখান থেকে মাইক্রোবাসে তাকে দেবীগঞ্জ উপজেলার দণ্ডপাল ইউনিয়নের নগরপাড়া গ্রামের বাড়িতে নেয়া হয়।

শুধু ক্রিকেটভক্তই নন, স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরাও শরিফুলের বাবা-মাকে শুভেচ্ছা জানাতে মিষ্টি ও ফুল নিয়ে ছুটে আসেন তার বাড়িতে। সোমবার দেবীগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে শরিফুলকে সংবর্ধনা দেয়া হবে।