ঢাকা, সোমবার, ২৫ জুন ২০১৮, ১১ আষাঢ় ১৪২৬

বাঁচা-মরার শেষ বলের আগে জাহানারাকে কী বলেছিলেন অধিনায়ক সালমা?

http://news.zoombangla.com/বাঁচা-মরার-শেষ-বলের-আগে-জা/
June 12, 2018

শেষ ৩ বলে যখন প্রয়োজন ৩ রান তখন হারমানপ্রীতের বলে আউট হন সানদিজা ইসলাম। পরের বলে ডাবল নিতে গিয়ে রান আউটের কবলে পড়েন রুমানা আহমেদ। জয়ের জন্য শেষ বলে প্রয়োজন ছিল ২ রান। বলটি লেগসাইডে ঠেলে দিয়েই অধিনায়ক সালমা খাতুনের সঙ্গে দুবার প্রান্ত বদল করেন নতুন ব্যাটসম্যান জাহানারা আলম।

শেষ বলে জাহানারার নেওয়া ২ রানেই ভারতকে ৩ উইকেটে হারিয়েছে বাংলাদেশ। সেই সঙ্গে পূরণ হয়েছে এশিয়া কাপে প্রথমবার শিরোপা জয়ের স্বপ্ন। ঐতিহাসিক জয়ের পর ১১ জুন, সোমবার দেশে ফিরেছে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল। এদিনই রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পক্ষ থেকে সংবর্ধনার আয়োজন করা হয়।

সংবর্ধনায় অনুষ্ঠানেই সালমা-জাহানারার কাছে আলাদাভাবে জানতে চাওয়া হয়েছিল শেষ বলের আগে দুজনের মধ্যে কী কথা হয়েছিল?

এই প্রশ্নের জবাবে অধিনায়ক সালমা বলেন, ‘কমিটমেন্ট এরকম ছিল যে, ব্যাটে বলে সংযোগ হলে যেভাবেই হোক, দুইটা রান আমরা করব। আউট হই বা না হই, এটা বড় বিষয় নয়। বলটাকে ব্যাটে কানেক্ট করতে হবে। যেখানেই যাক, দুই রান করতে হবে। সেটাই আমরা বলেছি এবং করতেও পেরেছি।’

একই প্রশ্নের জবাবে জাহানারা বলেন, ‘দ্বাদশ খেলোয়াড় এসে আমাকে জানাল, বলটা ব্যাটে লাগাতে বলছে। আমি ওকে একরকম জোর করে পাঠিয়ে দিলাম। বললাম, আমাকে কিছুই বলতে হবে না। আমি জানি। আমাকে ঠান্ডা থাকতে দাও। তারপর আমি হারমানপ্রীতকে একবার থামিয়ে ওর বোলিং প্ল্যানটা নষ্ট করে দিই। সে তার প্ল্যান নিয়ে এসেছিল, আমাকে কিভাবে হারাবে। ওর সেই প্ল্যান নষ্ট করে আমি আমার প্ল্যান কাজে লাগানোর চেষ্টা করেছি।’

শেষ বল নিয়ে নিজের পরিকল্পনার কথা জানাতে গিয়ে জাহানারা আরও বলেন, ‘আমার টার্গেট ছিল, যদি বল একটু লুপ আসে তো আমি সোজা খেলব। দুই রান, বাউন্ডারি বা ওভার বাউন্ডারি যা আসার আসবে। অন্যথায়, বল যেভাবে আসবে সেদিকে খেলে দুই রান নেওয়ার জন্য চেষ্টা করব। সালমা আপুকে আমি ওইভাবেই বললাম। তাকে বললাম, আপনি শুধু দৌড়াবেন। উনিও আমাকে একই কথা বলল, ব্যাটে বলটা লাগাস। আমি বললাম, চিন্তা কইরেন না। আমার আত্মবিশ্বাস আছে। আপনি শুধু দৌড়াবেন। পরে যা হয়েছে তা আপনারা সবাই দেখেছেন।’

শেষ বলটি মোকাবিলা করার আগের অনুভূতি জানাতে গিয়ে জাহানারা বলেন, ‘২০১৪ সালে এশিয়ান গেমসে আমাদের ৪২ বলে ৪৩ রান দরকার ছিল। এই রান তাড়া করতে গিয়ে শেষ ওভারে আমাদের উইকেটের পর উইকেট পড়ে যাচ্ছিল। নন স্ট্রাইকে দাঁড়িয়ে আমি দেখছিলাম শুধু। শেষ মুহূর্তে আমার সেই স্মৃতি মনে পড়ে গিয়েছিল। মনে হলো, এই বলে কিছু করতে হবে। আমাকে আজ যেকোনো মূল্যে শেষ করতেই হবে। এর থেকে বড় সুযোগ আমি আর পাবো না।’

এশিয়া কাপে নিজেদের পারফরম্যান্স ও দেশবাসীর দেওয়া উষ্ণ অভ্যর্থনা নিয়ে শিরোপা জয়ী অধিনায়ক সালমা বলেন, ‘কখনো ভাবিনি এরকম হবে। আমরা শুধু চেয়েছিলাম, ভালো খেলব, ভালো রেজাল্ট করে আসব। দেশে কি হবে, না হবে এটা আমরা চিন্তা করি নাই। আমরা আমাদের খেলাটা খেলে আসছি যাতে আমরা জিতে আসতে পারি। এটা আমাদের টার্গেট ছিল।’

843SHARESShareTweet

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ই-মেইল থেকে