ঢাকা, সোমবার, ২০ আগস্ট ২০১৮, ৫ ভাদ্র ১৪২৬

গুজরাটে দুই গৃহবধূর প্রেমের পরিণতি!

https://www.jugantor.com/international/59346/গুজরাটে-দুই-গৃহবধূর-প্রেমের-পরিণতি
BY  অনলাইন ডেস্ক ১২ জুন ২০১৮, ১৩:১৫ | অনলাইন সংস্করণ
প্রতীকী ছবি গুজরাটে আশা ও ভাবনা দুই নারী শ্রমিক একই কারখানায় কাজ করতেন। সেখান থেকে তাদের পরিচয় ও আলাপ হয়। পরে তাদের মধ্যে শুরু হয় প্রেমের সম্পর্ক।

ভারতীয় একটি সংবাদমাধ্যম জানায়, গুজরাটের আহমেদাবাদের সবরমতী নদীতে ঝাঁপ দিয়ে সোমবার আত্মহত্যা করেন দুই মহিলা। জানা যায়, নদীতে ঝাঁপ দেওয়ার আগে দুই মহিলার মধ্যে একজন তিন বছরের মেয়ে সন্তানকেও নদীতে ছুঁড়ে ফেলে দেন। তার পরে তারা দুজন মিলে নদীতে ঝাঁপ দেন।

নিহতরা হলেন, আশা ঠাকুর(৩০) এবং ভাবনা ঠাকুর(২৮)। বছর তিনের মেয়েটি আশারই সন্তান বলে খবর।

পুলিশ তদন্তে জানা যায়, আশা ও ভাবনার মধ্যে সমকামী সম্পর্ক ছিল। কিন্তু কয়েকদিন আগে ওই সম্পর্ক জানাজানি হয়ে পড়ায় মানসিক ভাবে বিধ্বস্ত হয়ে পড়েছিলেন তারা। দুই মহিলাই বিবাহিত। ভাবনারও দুটি ছেলে রয়েছে।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, ভাবনা ও আশা একই কারখানায় কাজ করতেন। সেখান থেকে তাদের আলাপ হয়। তার পরে শুরু হয় প্রেমের সম্পর্ক।

একটি সুইসাইড নোট উদ্ধার করেছে পুলিশ। নোটে লেখা রয়েছে, পৃথিবী ছেড়ে তারা অনেক দূরে চলে যাচ্ছে, এই জগৎ তাদের একসঙ্গে থাকতে দেবে না।

সম্পর্কে জটিলতার জেরেই ওই দুই মহিলা আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন বলে অনুমান করা হচ্ছে। পাশাপাশি, দুই মহিলার পরিবারকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে গুজরাট পুলিশ।