ঢাকা, সোমবার, ২৩ জুলাই ২০১৮, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬

প্রেমের টানে বাংলাদেশে! অতঃপর যা ঘটলো

http://news.zoombangla.com/প্রেমের-টানে-বাংলাদেশে-অ/
June 25, 2018

প্রেম মানে না কোনো বাঁধা। আর তাই ঘাস কাটার নামে কাঁটাতারের বেড়া টপকে ভারত থেকে বাংলাদেশে পাড়ি জমিয়েছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মালদা জেলার এক নাবালিকা প্রেমিকা। আগমনের ৬দিন পর পুলিশ ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ) ও বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)-র সহায়তায় কিশোরীকে উদ্ধার করে তার পরিবারের হাতে তুলে দেয়।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ভারতের তপন থানার অধীন গোপালনগর এলাকায় ১৪ বছর বয়সী শরিফা খাতুন (ছদ্মনাম) স্থানীয় একটি স্কুলের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী। বাংলাদেশী সীমান্তবর্তী ভূখণ্ডে জমি থাকার সুবাদে চাষবাস ও ঘাস কাটার জন্য ছোট বেলা থেকেই বাবার সাথে সেখানে আসত শরিফা।

নিয়মিত যাতায়াতের সুবাদেই মাস কয়েক আগে বাংলাদেশের নওগাঁর আইহাই গ্রামের বাসিন্দা করিম বাবু নামে এক যুবকের পরিচয় হয় শরিফার। ধীরে ধীরে প্রেমের সম্পর্কে আবদ্ধ হন তারা। এরপর ১৭ জুন ঘাস কাঁটার নাম করেই সীমান্ত পেরিয়ে করিমের নওগাঁর বাড়ি চলে যায় শরিফা এবং সেখানেই থাকতে শুরু করে। এদিকে বিকালে মেয়ে বাড়িতে না ফেরায় ১৮ জুন তপন থানায় নিখোঁজের অভিযোগ দায়ের করে শরিফার পরিবার।

এরপর পুলিশ পুরো বিষয়টি বিএসএফ’কে জানালে বিএসএফ ওই ভারতীয় কিশোরীকে ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য আর্জি জানায় বিজিবি’র কাছে। পরে দুই সীমান্তরক্ষী বাহিনীর সহায়তায় শরিফাকে উদ্ধার করে তপন থানা পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে তপন থানার অফিসার-ইন-চার্জ (ওসি) সৎকার সাংবো জানান, ‘সীমান্ত পেরিয়ে ওই ভারতীয় কিশোরীর বাংলাদেশে চলে যাওয়ার খবর পাওয়ার পরই বিএসএফ’এর সাথে যোগাযোগ করা হয়। শেষে করিমের বাড়িতে ওই তরুণীর খোঁজ মেলে। পরে তাকে উদ্ধার করে বিএসএফ’এর সহায়তায় তার পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়’।

66SHARESShareTweet

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ই-মেইল থেকে