ঢাকা, রবিবার, ০৯ মে ২০২১, ২৬ বৈশাখ ১৪২৭
BYবিনোদন ডেস্ক, ঢাকাটাইমস

বলিউডে জোর গুঞ্জন, অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোনের সঙ্গে তার প্রিয় নির্মাতা সঞ্জয় লীলা বানসালির ইগোর লড়াই এখন তুঙ্গে! এই দুজনে মিলে তৈরি করেছিলেন পরপর তিনটি সুপারহিট ছবি ‘রাম লীলা’, ‘বাজিরাও মাস্তানি’, ও ‘পদ্মাবত’। সে সময় তারা ছিলেন ‘বেস্ট ফ্রেন্ডস ফরএভার’।

পরস্পরের প্রতি বিশ্বাস দীপিকা-বানসালির সাফল্যের মূল চাবিকাঠি। তাই ‘মহাভারত’ ছবির কেন্দ্রীয় নায়িকা চরিত্র দ্রৌপদীকে নিয়ে ছবি বানানোর ভাবনা মাথায় আসতেই অভিনেতা ও প্রযোজক দীপিকা পাড়ুকোন ঠিক করেছিলেন, ছবির পরিচালক হবেন সঞ্জয় লীলা বানসালি।

শুধু ভাবনাই নয়, দীপিকা নিজে বানসালিকে ছবিটি পরিচালনার প্রস্তাবও দিয়েছিলেন। তার যুক্তিও ছিল ঠিক। পৌরাণিক গল্প, জমকালো সেট আর দ্রৌপদীর মতো চরিত্রকে পর্দায় ঠিক মতো ফুটিয়ে তুলতে পারবেন একমাত্র বানসালি। দীপিকা বিশ্বাস করেছিলেন, বলিউডে একমাত্র তিনিই পারবেন দ্রৌপদীর সত্ত্বাকে দর্শকের সামনে মেলে ধরতে।

কিন্তু দীপিকার সেই স্বপ্ন আপাতত পূরণ হওয়ার কোনো লক্ষ্মণ নেই। কারণ, বানসালি প্রত্যাখ্যান করেছেন দীপিকার প্রস্তাব। জানিয়েছেন, ‘গাঙ্গুবাই কাথিয়াওয়াড়’ এবং ‘বৈজু বাওরা’ নিয়ে ব্যস্ত তিনি। তাই আপাতত সময় দিতে পারবেন না ‘দ্রৌপদী’কে।

যদিও এর পেছনে অন্য গন্ধ পাচ্ছেন সমালোচকরা। তাদের মতে, ‘দ্রৌপদী’ নয় বরং দীপিকাতেই আপত্তি সঞ্জয়ের। কিন্তু কেন? নিন্দুকেরা বলেন, পরপর তিনটি ছবির সাফল্য অভিনেত্রী-পরিচালকের মধ্যে পারস্পরিক নির্ভরতা বাড়িয়েছিল। একে অন্যের ভালো বন্ধু হয়ে উঠেছিলেন। তবে তার সঙ্গেই আসে এক সমস্যা। তারা একে-অপরকে নিয়ন্ত্রণ করতেও শুরু করেছিলেন। দ্বন্দ্বের সূত্রপাত সেখানেই।

প্রশ্ন উঠছে, সম্পর্কের রসায়ন তলানিতে ঠেকার জন্যই কি ‘গাঙ্গুবাই’ ছবিতে পরিচালক দীপিকাকে বাদ দিয়ে আলিয়াকে নেন। এও গুঞ্জন, ছবিতে একটি গানের দৃশ্যে অভিনয়ের জন্য দীপিকাকে অনুরোধ করেছিলেন বানসালি। কিন্তু দীপিকা তাতে সাড়া দেননি। তাই এবার দীপিকার প্রস্তাব ফিরিয়ে শোধ নিলেন বানসালি।

ঢাকাটাইমস/১৮এপ্রিল/এএইচ