ঢাকা, রবিবার, ০৯ মে ২০২১, ২৬ বৈশাখ ১৪২৭

আরো দুই দলে করোনার হানা, তবু চলবে আইপিএল

https://www.dhakatimes24.com/2021/05/04/212873/আরো-দুই-দলে-করোনার-হানা-তবু-চলবে-আইপিএল
BYক্রীড়া ডেস্ক, ঢাকাটাইমস

কলকাতা নাইট রাইডার্স দলের দুই ক্রিকেটারের করোনা পজেটিভ আসায় আইপিএলের সোমবারের ম্যাচটি স্থগিত করা হয়। এবার কলকাতার পর আরো দুদলে করোনার হানা। কিন্তু এরপরও বন্ধ হচ্ছে না ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের(আইপিএল) খেলা। ফ্রাঞ্চাইজিগুলো আইপিএল চালিয়ে যাওয়ার পক্ষে মত দিয়েছেন।

সর্বপ্রথম করোনায় আক্রান্ত হন কলকাতার দুই ক্রিকেটার বরুণ চক্রবর্তী ও সন্দীপ ভারিয়ের। এ দুজনসহ তাঁদের সান্নিধ্যে আসা সবাইকে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। এর করোনা পজেটিভ আসে চেন্নাই সুপার কিংসের তিন সদসস্যের। পাশাপাশি নিজ নিজ কক্ষে আইসোলেশনে থাকতে বলা হয়েছে দিল্লি ক্যাপিট্যালসের খেলোয়াড়দের।

এমতাবস্থায় আইপিএল চলবে নাকি বন্ধ করে দেয়া হবে- সেটা গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন হয়ে উঠেছে। আপাতত সে চিন্তা নেই আইপিএল আয়োজকদের। তারা বরং ঝুঁকি কমানোর জন্য এক শহরেই আইপিএলের বাকিসব ম্যাচ আয়োজনের কথা ভাবছেন। সবকিছু পরিকল্পনা মোতাবেক এগুলে, আগামী রোববার থেকে আইপিএলের একমাত্র আয়োজক শহর থাকবে মুম্বাই।

ভিন্ন ভিন্ন দলের খেলোয়াড় ও কোচ করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পরও এক ফ্র্যাঞ্চাইজি কর্মকর্তা স্থানীয় গণমাধ্যমে খেলা চালিয়ে নেওয়ার প্রত্যাশার কথা জানিয়েছেন। টাইমস অব ইন্ডিয়াকে তিনি বলেন, ‘খেলোয়াড়দের অর্ধেক পারিশ্রমিক দিয়ে দেওয়ায় এখন আর খেলা বন্ধ করে দেওয়া সম্ভব নয়। যদিও খবরটি বিসিসিআইকে চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলে দিয়েছে। আমরা শুনেছি, যে খেলোয়াড় করোনায় আক্রান্ত হয়েছে, সে জৈব সুরক্ষাবলয়ের বাইরে স্ক্যান করাতে গিয়েছিল। তার মানে এটা সুরক্ষাবলয়ের বাইরেও ঘটতে পারে। আমি যতটুকু জানি, সবাই বিসিসিআইয়ের দেওয়া জৈব সুরক্ষাবলয়ের নীতি মেনে চলছে, যা কেউ লঙ্ঘন করছে না।’

উল্লেখ্য, চলতি আসরে ছয়টি শহরকে বেছে নেয়া হয়েছে আইপিএলের আয়োজক হিসেবে। এখন চলছে দিল্লি ও আহমেদাবাদ পর্ব। এরপর রয়েছে ব্যাঙ্গালুরু ও কলকাতা পর্ব। আর সবশেষ প্লে-অফের চার ম্যাচের জন্য ভেন্যু হিসেবে নির্ধারণ করা আছে আহমেদাবাদকে।

(ঢাকাটাইমস/০৪মে/এমএম)